নিউটাউন এ এ-১বি ব্লকের শিল্পীরা তাদের উপস্থাপনের মধ্যে দিয়ে অশুভ শক্তির বিনাশ

0
84

১৯৩১ সাল। কোলকাতার আকাশবাণীর বেতারে প্রথম মহালয়া তিথির অনুষ্ঠান মহিষাসুরমর্দিনী সম্প্রচার হয়। প্রেমাঙ্কুর আতর্থী, বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্র, নৃপেন্দ্রকৃষ্ণ মুখোপাধ্যায়, রাইচাঁদ বড়াল এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন। দেড় ঘন্টার এই অনুষ্ঠানে শ্রী শ্রী চন্ডী বা দুর্গা ” সপ্তশতী ” থেকে দেবী চন্ডীর স্তোত্র সহ সংগীতের আবহে সমগ্র অনুষ্ঠানটি বাংলার মানুষের কাছে অত্যন্ত শ্রদ্ধার এবং আবেগের। মহালয়ার পুণ্য তিথিতে শিশির ভেজা ভোরে প্রায় প্রত্যেক বাঙালি জেগে ওঠেন “মাহিষাসুর্মিরদিনী ” সম্প্রচার শোনার জন্য।
বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের মন্ত্রমুগ্ধকর কণ্ঠস্বর ছাড়া বাঙালির দুর্গোৎসব অসম্পূর্ণ। বিখ্যাত সংগীত পরিচালক পঙ্কজ কুমার মল্লিকের সংগীত পরিচালনায় এবং বাণীকুমার এর মত বিখ্যাত ব্যক্তির গ্রন্থনা সমগ্র অনুষ্ঠানকে ইতিহাসের পাতায় অবিস্মরণীয় করে রেখেছে যা আগামী দিনেও বাংলার সংস্কৃতির আকাশে উজ্জ্বল হয়ে থাকবে।
৮৮ বছরের উজ্জ্বলতার উষ্ণতাকে সঙ্গে নিয়ে এ বছরের দুর্গাপূজায় লাইভ “মাহিষাসুর্মিরদিনী ” উপস্থাপন করতে চলেছে নিউটাউন এএ–১বি সর্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির সদস্যগণ।” মহিষাসুরমর্দিনী” উপস্থাপনার মধ্যদিয়ে তাঁরা স্মরণ করবেন বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্র, পঙ্কজ কুমার মল্লিক এবং বাণীকুমার এর মত বিখ্যাত ব্যক্তিত্বদের।
সোশ্যাল মিডিয়ার শাসনে বাঙালি এখনো ক্রীতদাস হয়ে যায়নি তারই সাক্ষ্য বহন করবে ” মহিষাসুরমর্দিনীর সেদিনের উপস্থাপন। এই অমর গীতিআলেখ্য বর্তমান প্রজন্মের কাছে আজ সমাদৃত তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।
নিউটাউন এ এ–১বি ব্লকের শিল্পীরা তাদের উপস্থাপনের মধ্যে দিয়ে অশুভ শক্তির বিনাশ এবং শুভ শক্তির আবাহনই তাদের এই অনুষ্ঠানের ইউএসপি।

Comments

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here